জে’নে নিন ঘরোয়া উপায়ে দাঁত একদম সাদা ঝ’কঝকে করার টিপস!

লাইফ স্টাইল

একটা মানুষকে কখন সবথেকে বেশি সুন্দর লাগে জা’নেন? সে যখন হাসে। আর সেই হাসি যদি হয় সাদা ঝকঝকে, তাহলে তো আর কোন কথায় নেই। দাতে যদি কালো দাগ বা ছোপ থাকে তাহলে নিজে’রই খা’রাপ লাগে। লোক সমাজে মন খু’লে হাসতে লজ্জা লাগে। অন্যের কাছে নিজে’র সম্ব’ন্ধে এই খা’রাপ ছাপ পড়ার আগে পরিস্কার করে ফেলুন আপনার দাঁতের

সমস্ত দাগ।দাঁত প্রতিদিন ব্রাশ করলেও কারোর কারোর দাঁতে হলুদ ছোপ প’ড়ে যায়। আর তার স’ঙ্গে মুখে দুর্গন্ধ ছড়ায়। মানুষের স’ঙ্গে কথা বলতে ইতস্তত বোধ হয়। এটি থেকে দূ’র হতে আপনাকে একটা ঘরোয়া পদ্ধতি ব্যবহার ক’রতে হবে।এই পদ্ধতি ব্যবহারে আপনার দাঁত যেমন

চকচক করবে তার সাথে সাথে মুখের দুর্গন্ধ দূ’র হবে। আপনার মাড়ির কোন স’মস্যা থাকলে তা থেকেও মু’ক্তি পাবেন। সেই পদ্ধতিটি কি তাহলে আসুন জে’নে নেওয়া যাক। এর জন্য দরকার কিছু সাধারন উপাদান। টুথপেস্ট, বেকিং সোডা, লবণ, লেবুর রস ও কফি। এবার প্রথমে একটি

ছোট পাত্রে পরিমান মত টুথপেস্ট নিন। তারপর এর সাথে অর্ধেক চামচ বেকিং সোডা নিন, এর উপর অল্প লবণ দিন। তারপর এরসাথে অর্ধেক চামচ পাতি লেবুর রস দিয়ে সব জিনিস ভালো করে মিশিয়ে নিন। ভালো ভাবে মি’শ্রণটি বানিয়ে নিন। মি’শ্রণটি বানানো হয়ে গেলে

সেটিকে ব্রাশে করে নিয়ে দাঁত মাজুন। এটি একবার ব্যবহারে আপনি চোখে পড়ার মত পার্থক্য লক্ষ ক’রতে পারবেন। জিরো ফিগারের মা’রাত্নক ক্ষ’তিকর দিকগুলো! জিরো ফিগার আ’সলে মাকাল ফল। হালকা ছিপছিপে গড়নের মেয়েরা দে’খতে আ’ক’র্ষণীয় হলেও, তারা নানাবিধ স্বা’স্থ্য

ঝুকিতে থাকেন। অপরদিকে কোন মেয়ে একটু মোটু হইলেই তার হাজারটা দোষ। জিমের ছাঁচে ফে’লে নিজে’র তুলতুলে শ’রীরটাকে, দুই লিটারের কোকের বোতল বানাবার জন্য উঠে পড়ে লাগে। প্রত্যেকের শ’রীরের নিজস্ব সৌন্দর্য আছে, স্বা’ভাবিকভাবেই কেউ পাতলা, কেউ মোটু, কেউ মাঝারি গোছের অথচ জিরো ফিগার কিংবা স্লিম ফিগার না হলে মেয়েটা সুন্দর না, এমন একটা ফালতু ধারণা সবার মনেই ঢুকে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *